একমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টি আগামী দিনের পথচলাকে সহজ করবে : অমিত

বিএনপি খুলনা বিভাগীয় সহসংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত বলেছেন, রমজান মাস হচ্ছে পবিত্র কুরআন নাযিলের মাস। এ মাসে আমরা বেশি বেশি করে ইবাদত করবো, আলেম ও এতিমদের প্রতি সম্মান খেদমত ও সম্মান দেখাবো। মানুষের খেদমত করলে আল্লাহ আমাদের প্রতি সন্তুষ্ট হবেন। আর আল্লাহর সন্তুষ্ট থাকলেই আমরা আমাদের মূল লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারব।

তিনি উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই পবিত্র রহমতের মাসে আপনারা আল্লাহর কাছে বেশি বেশি দোয়া করবেন। একমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টি আমাদের আগামী দিনের পথচলাকে সহজ করে দেবে।

যশোরে ‘ওলামা-মাশায়েখ-এতিম’দের সম্মানে ইফতার মাহফিল করেছে জেলা স্বেচ্ছাসেবকদল। শনিবার শহরের লালদিঘিস্থ দলীয় কার্যলয় এই ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতিমখানার কয়েক শত শিক্ষার্থী এ ইফতারে অংশ নেয়। ওলামা-মাশায়েখ ও এতিমদের পাশে নিয়ে ইফতার করেন প্রধান অতিথি বিএনপি খুলনা বিভাগীয় সহসংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত।

এ সময় তিনি বলেন, দেশের মানুষ অবরুদ্ধ, গণতন্ত্র আজ নির্বাসিত। এ সরকারের অমরে দেশের হাজার হাজার মানুষ গুম, খুন ও নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এতিম হয়েছে শত শত মাসুম শিশু। এতিমদের দোয়া মহান আল্লাহর কবুল করেন। সরকারের দুঃশাসন ও অপশাসনের কবল থেকে অচিরেই এ জাতি মুক্তি পাবে ইনশাআল্লাহ।

জেলা বিএনপির আহবায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম বলেন, গোটা জাতি আজ চরম ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। সরকারের দুঃশাসনের কবলে জাতি আজ নিষ্পেষিত। মানুষের ন্যুনতম মৌলিক অধিকার নেই। এ অবস্থায় এ জালিম সরকারের দুঃশাসনের কবল থেকে একমাত্র আল্লাহর রহমতই আমাদের মুক্তি দিতে পারে।

তিনি আল্লাহর দরবারে সবাইকে দোয়া চেয়ে বলেন, যাতে আল্লাহ আমাদের দ্রুত এ অত্যাচারের কবল থেকে মুক্ত করে। আমাদের প্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জালিমের কারাগার থেকে মুক্তির ফয়সালা করে দেয়। তিনি সরকারের দুঃশাসন থেকে জাতিকে মুক্ত করতে স্বেচ্ছাসেবক দলসহ জাতীয়বাদী দলের সকল নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান।

ইফতার মাহফিলে দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। এছাড়া বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ও সাবেক মন্ত্রী মরহুম তরিকুল ইসলামের রুহের মাগফিরাত কামনা ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানের সুস্থতা কামনায় বিশেষ দোয়া করা হয়।

জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি রবিউল ইসলামের সভাপতিত্বে ইফতার মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন, আহবায়ক কমিটির সদস্য গোলাম রেজা দুলু, নগর বিএনপির সভাপতি মারুফুল ইসলাম, সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. নুরুন্নবী, জেলা বিএনপির সাবেদ দপ্তর সম্পাদক একে শরফুদ্দৌলা ছটলু, নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আজম, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আজম, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা ইফতেখার সেলিম অগ্নি, বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম মুল্লুক চাঁদ, অ্যাডভোকেট আবু মুরাদ, যুবদলের সাবেক সভাপতি এহসানুল হক মুন্না, শহিদুল বারী রবু, রাশেদ আব্বাস রাজ, এহসানুল হক সেতু, উপাধ্যক্ষ মকবুল হোসেন, খায়রুল বাশার শাহীন, মহিলাদলের নেত্রী ফেরদৌসী বেগম, রাশিদা রহমান, জোসনা আলীম, জেলা যুবদলের সভাপতি এম তমাল আহমেদ, যুগ্ম সম্পাদক নাজমুল হোসেন বাবুল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক নেতা শেখ আকবর হোসেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা আমীর ফয়সাল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আলী হায়দার রানা, নির্মল কুমার বীট, সাইদ ইসলাম রাজু, মিজানুর রহমান মিলন, ছাত্রদলের সভাপতি রাজিদুর রহমান সাগর, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাপ্পী, সদর উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি তানভীর রায়হান তুহিন ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.