৪৯ দিনেই কোরআনে হাফেজ ৮ বছরের শিশু রাফসান

বয়স মাত্র আট বছর পেরিয়েছে। এ বয়সেই মাত্র ৪৯ দিনে পূর্ণাঙ্গ কোরআন মুখস্থ করে সে বিস্ময় জাগিয়েছে। কুমিল্লার মনোহরগঞ্জের সন্তান রাফসান মাহমুদ জিসান। কুমিল্লা শহরের ইবনে তাইমিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের হিফজ বিভাগের ছাত্র সে।

রাফসানের গ্রামের বাড়ি উপজেলার বিপুলাসার ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামে। তার বাবা প্রবাসী বাহার উদ্দিন।

ইবনে তাইমিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক হাফেজ আবুল হাসান গণমাধ্যমকে জানান, ‘রাফসান মাহমুদ ২০১৬ সালের শেষ দিকে নূরানী পদ্ধতিতে পড়ালেখা শুরু করে। ২০১৮ সালের নভেম্বরের আগে নাজেরা (কোরআন দেখে পড়ার যোগ্যতা) শেষ করে। এরপর নভেম্বরের ৪ তারিখে কোরআন শরিফ হেফজের (মুখস্থ) পাঠ আরম্ভ করে। কিন্তু বিস্ময়কর বিষয় হলো, মাত্র দুই দিনে সে পবিত্র কোরআনের ৩০তম পারাটি সম্পূর্ণ মুখস্থ করে শোনায়। আমরা মনে করেছিলাম, রাফসানের এই পারাটি আগে মুখস্থ ছিল। তাই সে দুই দিনেই পড়া শুনিয়ে দিতে পেরেছে। পরের দিন আমরা তাকে কোরআনের প্রথম পারা মুখস্থ করতে দেই। এবারও সে পুরো পারাটি মাত্র দুই দিনেই মুখস্থ করে শোনায়। এভাবে সে দুই দিনে এক পারা করে মুখস্থ করতে থাকে। ১০ পারা পর্যন্ত এভাবে চলতে থাকে।’

তিনি আরো বলেন, ‘রাফসানের এমন অভাবনীয় অবস্থা দেখে আমরা নিশ্চিত হই, সে অত্যন্ত তীক্ষè ধীশক্তির অধিকারী। এরপর সে ১৪ দিনে কোরআনের ১১ পারা থেকে নিয়ে ২৫ পারা পর্যন্ত মুখস্থ করে এবং আর ৪ দিনে বাকি পারাগুলো মুখস্থ করে।’

এভাবেই রাফসান মাত্র ৪৯ দিনে কোরআন শরিফের পুরো ৩০ পারা করেছে বলে জানান তার শিক্ষক। সে এখন পূর্ণাঙ্গ কোরআন শরিফ শিক্ষকদের পুনরায় মুখস্থ শোনাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.